তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়্যিপ এরদোয়ান শনিবার জানিয়েছেন, রাশিয়ার এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার জন্য আঙ্কারার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করেনি আমেরিকা।

জাপানে চলমান জি-২০ সম্মেলনের এক ফাঁকে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর তিনি একথা জানান বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

এরদোয়ান বলেন, আমরা ব্যক্তিগতভাবে ট্রাম্পের কাছ থেকে শুনেছি যে তুরস্কের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের মতো কোনও ঘটনা ঘটবে না। আমরা একে অপরের কৌশলগত অংশীদার।

তিনি এই বিষয়ে জোর দিয়ে বলেন, কৌশলগত অংশীদার হিসেবে কোনও দেশের তুরস্কের সার্বভৌমত্বে হস্তক্ষেপ করার অধিকার নেই। প্রত্যেকের এটি জানা উচিত।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা এফ-৩৫ জেট কেনার জন্য আমেরিকাকে ১.৪ বিলিয়ন ডলার দিয়েছি। ১১৬টি জেটের মধ্যে এ পর্যন্ত চারটি জেট তুরস্ককে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি জেটও পাবো আশা করি।

তিনি বলেন, নিম্ন মানসিকতার কিছু মানুষ ট্রাম্পের সঙ্গে কোনোভাবেই জোট না করার জন্য বলছে। কিন্তু আমি মনে করি এসব দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করবে না এবং এটিই আমাদের অঙ্গীকার।

এর আগে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প তুরস্কের সঙ্গে অন্যায় আচরণ এবং প্যাট্রিয়োট ক্ষেপণাস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে শর্ত আরোপের জন্য বারাক ওবামা প্রশাসনকে দায়ী করেন।

এক্ষেত্রে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের কোনও দোষ নেই বলেও উল্লেখ করেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here